নাটোরের যুবলীগ নেতা পলাশ মারা গেছে

0
139
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা, নাটোর (১১ ডিসেম্বর) সাবেক উপমন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদারের বাসার সামনে গুলিবিদ্ধ সেই যুবলীগের নেতা পলাশ কর্মকার (৩২)  মঙ্গলবার সকালে মারা গেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় সকাল পৌনে ছয়টার দিকে তিনি মারা যান।
পলাশের পরিবার জানায়, গত শনিবার রাতে নাটোরে রুহুল কুদ্দুস তালুকদারের বাসার সামনে পলাশ গুলিবিদ্ধ হন। রাতেই তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অস্ত্রোপচার করে তাঁর শরীর থেকে একটি গুলি বের করা হয়। এরপর তাঁকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে রাখা হয়। সেখানে সকাল পৌনে ছয়টার দিকে তিনি মারা যান।
পলাশের বড় ভাই সমীর কর্মকার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ময়নাতদন্ত শেষে পলাশের লাশ নিয়ে তাঁরা নাটোরে ফিরবেন।
জানা গেছে, পলাশ সোনার গয়না তৈরির দোকানে কাজ করতেন। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর তিনি যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। তিনি শহর যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন।
শনিবার রাতে তাঁর গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনার পর রুহুল কুদ্দুস তালুকদার ও দলের আরও তিন কর্মীকে পুলিশ আটক করে। পরের দিন যুবলীগের নেতা সৈয়দ মর্তুজা আলী বাদী হয়ে রুহুল কুদ্দুস তালুকদারসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় আটক ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
মামুন পলাশের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে নাটোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, পলাশের আহত হওয়ার মামলাটি এখন হত্যা মামলা হিসেবে দেখানো হবে।

নিউজরুম

শেয়ার করুন