৪ বছরের মীম খুঁজে ফিরছে বাবাকে

0
149
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা, চট্টগ্রাম (২৬ নভেম্বর) : স্বামী হারিয়ে শোকে পাথর জাহানারা বেগমের কোলে চুপচাপ বসে আছে মীম (৪)ডাগর ‍ডাগর চোখে সে খুঁজে ফিরছে বাবাকেপাশে দাঁড়িয়ে বিলাপ করছে মীমের ভাই আরিফুল ইসলাম ফারুক, বোন ফারজানা, সুলতানা ও চুমকি

 

শনিবার সন্ধ্যায় ঘটে যাওয়া বহদ্দারহাট ফ্লাইওভার ট্র্যাজেডিতে না ফেরার দেশে চলে গেছেন এ পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি মোহাম্মদ ইলিয়াছ প্রকাশ লেদু (৫৫)

 

বাকরুদ্ধ কণ্ঠে জাহানারা জানান অভিশপ্ত সেই সন্ধ্যার কথা

 

‘‘আশুরা উপলক্ষে সারা দিন আমরা নফল রোজা রেখেছিলামইফতারও করেছি সবাই মিলেএরপর কিছুক্ষণ সংসারের টুকিটাকি, বড় মেয়ের স্বশুর বাড়িতে মহরমের ভাত-তরকারি দেওয়ার ব্যাপারে আলোচনাও করেছিলামএকসময় এশার আজান শোনা যায়উনি গেলেন বাজার করার জন্যবলেছিলেন, তাড়াতাড়ি ফিরে আসবেনযাওয়ার সময় মীমকে আদরও করে দিয়েছিলেন’’

 

কান্নায় ভেঙে পড়লেন জাহানারাপ্রতিবেশী বোন এসে জড়িয়ে ধরলেন তাকেকিছুক্ষণ কেঁদে চোখ মুছলেনবললেন তার পরের ঘটনা

 

‘‘উনি ঘর থেকে বেরোনোর ১০ মিনিট পরই শুনলাম বিকট শব্দকেঁপে উঠল মাটিমনে করেছিলাম বুছাল (ভূমিকম্প) যাচ্ছেকোনো দালান হয়তো ভেঙে পড়েছেঘর থেকে বেরিয়ে গেলামজানতে পারলাম ফেলাইওভার (ফ্লাইওভার) ধসে পড়েছেচারদিকে শোরগোল, হইচইছেলেকে পাঠালাম উনাকে খোঁজার জন্যরাত সাড়ে ১০টায় ছেলে ফিরল বাবাকে ছাড়াইএরপর সবাই মিলে বেরোলাম, হাঙ্গামা পেরিয়ে হাসপাতাল, অলিগলি তন্নতন্ন করে খুঁজলামকোথাও চিহ্ন পর্যন্ত পেলাম নাএভাবে চলে গেল পুরো রাত’’

 

মীমকে দেখিয়ে বলেন,‘‘অবুঝ মেয়েটি বাবার পথ চেয়ে বসে আছেবাবা বাজার থেকে ফেরার পথে আনবেন চকলেট-চিপসকীভাবে বোঝাই ওর বাবা আর কোনো দিন ওকে কোলে নেবে না, আদর করবে না’’

 

এবার কথা বলেন ইলিয়াছের একমাত্র ছেলে ফারুক, ‘‘হাজারো মানুষ, আগুনের লেলিহান শিখাচিকার চেঁচামেচিচারদিকে বীভস দৃশ্যকিন্তু আমার সেদিকে খেয়াল ছিল নাশত বাধা পেরিয়ে খুঁজছিলাম বাবাকেকিন্তু না পাইনিমেডিক্যালে খুঁজলাম, পাইনিঅবশেষে রোববার সকাল আটটার দিকে পেলাম বাবার লাশমুখের একপাশ থেঁতলে গেছেঝুরঝুরে হয়ে চামড়া উঠে গেছে’’

 

ছেলের কথার পর কিছুটা স্বাভাবিক হলেন জাহানারাবললেন, ‘‘আমাদের মতো গরিব-দুঃখী মানুষগুলো মারা গেল কাদের দোষেযারা দোষী তাদের বিচার চাইসরকার যদি বিচার না করে আল্লাহ যেন বিচার করেআমার ৩ মেয়ের বিয়ে দেবে কে, কীভাবে চলবে সংসারকে দেখবে আমাদের’’

 

‘‘ফ্লাইওভার কেন দিচ্ছে, কী লাভ হবে আমরা তা বুঝি নাআমরা শুধু জানি এ ফ্লাইওভারের জন্যই আমাদের বাবাকে হারিয়েছিআমরা ফ্লাইওভার চাই না, বাবাকে ফেরত চাইআমার বাবা সুস্থ মানুষ ছিলেনকঠোর পরিশ্রম করে সংসার চালাতেন’’ ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন ইলিয়াছের ৩ মেয়ে

 

সাংবাদিক এসেছেন শুনে ইতিমধ্যে পাড়াপড়শীর ভিড় জমে উঠেছে চান্দগাঁও ইয়াছিন হাজির বাড়ির কার্পেন্টার ইলিয়াছের কুঁড়েঘরেটিনের বেড়ার ছোট্ট ঘরটিতে ফের জেগে উঠছে কান্নার রোল, আহাজারি

 

 

 

নিউজরুম

 

 

 

শেয়ার করুন