“আওয়ামী লীগ হলো বিশ্ব চোর”

0
51
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা, বরিশাল (১৯ নভেম্বর) :বিএনপির চেয়ারপার্সন বিরোধী দলীয় নেতাখালেদা জিয়া বলেছেন, পদ্মাসেতু আওয়ামী লীগের দুর্নীতির জন্যই হয়নিবিএনপিসরকার যমুনা সেতুসহ বড় বড় সেতু করেছেআমরা ক্ষমতায় গেলে দুটি পদ্মাসেতুকরবো

তিনি বলেন, ‘‘আমরা সেতুসহ সব ধরনের উন্নয়ন কাজ সম্পূর্ণ করি, আর আওয়ামী লীগ সেগুলোর নামফলক তুলে দিয়ে তাদের কৃতিত্ব দাবি করেআমিক্ষমতায় আসার আগে যা যা করবো বলেছিলাম সবই করেছিএবার বিএনপিসহ আঠারো দলীয়জোট ক্ষমতায় এলে সব করবো’’সোমবার বিকেলে বরিশাল বিভাগীয় জনসভায়প্রধান অতিথির বক্তব্য দানকালে এসব কথা বলেন খালেদা জিয়াবরিশাল নগরীরবেলস পার্ক মাঠের এই জনসভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যনগর বিএনপির সভাপতি মজিবুর রহমান সরোয়ারখালেদা বলেন, ‘‘এই সরকার অনেক সুন্দর সুন্দর কথা বলে ক্ষমতায় এসেছিলঅনেক কিছু করবে বলেছিলকিছুই করেনিযা করেছে নিজেদের জন্য’’

‘‘বরিশালেও কোনো উন্নয়ন আমি দেখতে পাচ্ছি নাএই সরকার চার বছরে বরিশালের জন্য কিছুই করেনি’’
খালেদাআরো বলেন, ‘‘আওয়ামী লীগের লক্ষ্য লুটপাট করাএই সরকারের বিরুদ্ধে এখনবিদেশিরাও দুর্নীতির তদন্ত করছেনচোরদের দিয়ে দেশের উন্নয়ন হয় নাএইসরকারকে দিয়েও কোনো উন্নয়ন হবে না’’১৮ দলীয় জোটপ্রধান খালেদা জিয়াআরো বলেন, ‘‘এই সরকার মিথ্যাবাদীএই চার বছরে ক্ষমতায় আসার পর কোনো ওয়াদাপালনতো করেই নাই, বরং কৃষি উপকরণের দাম তিনগুণ বাড়িয়েছে

 এই সরকার আসলেজনগণের সরকার নয়, এরা জনগণের রক্তচোষা সরকার’’‘‘কুইক রেন্টালপাওয়ার প্লান্টের নামে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছেকিন্তু বিদ্যুতেরপাদন বাড়েনিমানুষ এখনো বিদ্যু পাচ্ছে নাএর মধ্যে ছয়বার বিদ্যুতেরদাম বাড়িয়েছে তারাআবারো বাড়াবেকুইক রেন্টালের নামে জনগণের পকেট কেটেনিজেদের পকেটে ভরছেএর সঙ্গে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী জড়িত’’ খালেদাজিয়া আরো বলেন, ‘‘আজ প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনীর পাশাপাশি বিচার বিভাগকেপর্যন্ত দলীয়করণ করা হয়েছেবিচার বিভাগে দলীয় লোকদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছেসেজন্যই ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসী অপরাধীদের ধরা হয় নাআরআমাদের নেতাকর্মীদের কিছু না হতেই মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়, গ্রেফতার করাহয়এমনকি জামিনও দেওয়া হয় না’’

আওয়ামী লীগ দুর্নীতিবাজ ও বিশ্বচোরের সরকার বলে অভিযোগ করে খালেদা বলেন, ‘‘সারা দেশে এখন একই শোর, আওয়ামী লীগ হলো বিশ্ব চোর’’

‘‘এইসরকারের মূল নীতি হচ্ছে, দুর্নীতি, লুটপাট, গুম আর খুনতাই তাদের হাতেশুধু রক্ত আর লুটপাট করা সম্পদ’’ বলেও মন্তব্য করেন বিরোধী দলীয় নেতাতিনিবলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় তার কিছুই করেনিতাদের প্রত্যাখ্যান করতে হলেআন্দোলন করতে হবেআন্দোলনে যুবকদের শরিক হতে হবেশুধু বাংলাদেশে নয়, বিদেশে যারা চাকরি করতেন তাদেরও খালি হাতে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছেজমি জমাবিক্রি করে তারা সেখানে গিয়েছেনএই সরকার দুর্ল সরকারতাদের ওপরবিদেশিদেরও কোনো সমর্থন নেইপদ্মাসেতু হবে না উল্লেখ করে তিনিবলেন, এই সরকার পদ্মাসেতুর কথা বলছেকিন্তু এদের সময়ে এই সেতু আর হবে নাকারণ, সেতু হওয়ার আগেই টাকা লুট করে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বোনেরা আরজামাই
খালেদা জিয়া বলেন, এই সরকার আদালতের দোহাই দিয়ে মিথ্যা কথাবলে সংবিধান সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করেছেঅথচ আদালতও আরোদুই মেয়াদে তত্ত্বাবধায়ক সরকার রাখার কথা বলেছিলেনএখন আবার তাদের দলীয়সরকারের অধীনে নির্বাচনের পাঁয়তারা চালাচ্ছেনএমনকি বর্তমান এমপিরাওপদত্যাগ না করেই নির্বাচন করতে চাচ্ছে এই সরকার
এ ধরনের ব্যবস্থাবিশ্বের কোথাও নেই বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে এ দেশেকোনো নির্বাচন দেওয়া হবে নাতত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোনো নির্বাচন হবেনা   তিনি বলেন, এই মহাচোর, খুনি, সন্ত্রাসীদের সরকারক্ষমতায় থাকলে দেশের কোনো উন্নয়ন হবে না, দেশ ধ্বংস হয়ে যাবেতাই একমাত্রসমাধান হচ্ছে, এ সরকারের পতন ঘটিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহাল এবং তারঅধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপি তথা ১৮ দলীয় জোটকে ক্ষমতায় আনা
বিএনপিকেমুক্তিযোদ্ধাদের দল ও মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি বলে উল্লেখ করে ক্ষমতায়গেলে উন্নয়ন, সন্ত্রাস দূর, জঙ্গি নির্মূলসহ সব ধর্মের মানুষেরশান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের মাধ্যমে একটি আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশগড়ারও প্রতিশ্রুতি দেন খালেদা জিয়াবস্তি ও হকার উচ্ছেদ বিএনপি করবে নাউল্লেখ করে তিনি বলেন, তাদের জন্য ভালোভাবে জীবন যাপনের ব্যবস্থা করবেবিএনপিপাশাপাশি বেকার যুবকদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা হবেদেশে সুশাসনপ্রতিষ্ঠা করাও হবে বিএনপির কাজতিনি কুয়াকাটা ও কক্সবাজারেআন্তর্জাতিক মানের পর্যটনকেন্দ্র গড়ে তোলা, বরিশাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি কলেজনির্মাণসহ দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি

 জনসভায়আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার ভাইসমার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ, জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, এনপিপির চেয়ারম্যান শওকত হোসেন নীলু, জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেলঅধ্যাপক মুজিবুর রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব আব্দুল লতিফ নেজামীস্থানীয় নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতিআহসান হাবিব কামাল ও সাধারণ সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন এবং বরিশাল উত্তরজেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহউদ্দিন ফরহাদ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক আকনকুদ্দুসুর রহমান প্রমুখ 

  

নিউজরুম

শেয়ার করুন