ভেজাল কীটনাশকে বাজার সয়লাব

0
206
Print Friendly, PDF & Email

দেশের বাজার ভরে গেছে ভেজাল ও নকল কীটনাশকেঅন্যতম এ কৃষি উপকরণটি কিনে প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে কৃষকরাপাশাপাশি কমে যাচ্ছে কৃষি উপাদনদেশের সীমান্ত এলাকাগুলোতে প্রকাশ্যেই বিক্রি হচ্ছে ভারতীয় ভেজাল কীটনাশকতাছাড়া কীটনাশক উপাদনকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার নকল ব্র্যান্ডও বিক্রি হচ্ছে অবাধেএতে শুধু যে

 

কৃষক ও কৃষি উপাদন ব্যাহত হচ্ছে তা নয়, সরকারও বঞ্চিত হচ্ছে বিপুল রাজস্ব থেকেমূলত বাজারে তুলনামূলকভাবে দাম কিছুটা কম হওয়ার কারণে নকল ও ভেজাল কীটনাশকের বাজার রমরমাদীর্ঘদিন ধরেই প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ওই চক্রের সদস্যরা নকল ও ভেজাল কীটনাশকের অবৈধ ব্যবসা চালিয়ে আসছেঅনেকে খুলে বেসেছেন নকল কীটনাশকের কারখানাওএসব নকল ও ভেজাল কীটনাশক চেনার কোনো উপায় নেইফলে কৃষকরা নকল ও ভেজাল কীটনাশক ব্যবহার করলেও জমিতে পোকামাকড় ও বালাই দমনে তা কোনো কাজে আসছে নাবর্তমানে দেশে অনুমোদিত ১২টি ফরমুলেশন (দানা কীটনাশক পাদন) কারখানা রয়েছে

 

তবে এর বাইরে আরো কয়েকটি অবৈধ কারখানাও ভেজাল কীটনাশক তৈরি করার খবর পাওয়া গেছেইটের গুঁড়া ও পাথুরে বালি দিয়ে দানাদার কীটনাশক তৈরি করে তাতে তরল কীটনাশকের স্প্রে করা হয়পরবর্তীতে তা বিক্রির জন্য প্যাকেটজাত করে অসাধু ডিলার ও ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে বাজারজাত করা হয়দীর্ঘদিন ধরেই দেশজুড়ে এ অবস্থা চলতে থাকলেও অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জোরালো কোনো পদক্ষেপের উদ্যোগ নিচ্ছে না সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষবরং অভিযোগ রয়েছে, প্রশাসনের কর্তব্যক্তিদের ম্যানেজ করেই নকল কীটনাশক কারখানাগুলো দেশে ব্যবসা করছেজনবহুল এদেশে খাদ্য চাহিদা মেটাতে দিন দিন বাড়ছে কৃষি চাষের পরিমাণ

 

আর এর সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে কীটনাশকের ব্যবহারওএ সুযোগই কাজে লাগাচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরাএ অনাচার রোধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া দরকার বলে আমরা মনে করি

 

 

 

শেয়ার করুন