হৃদরোগীদের জন্য আরো সুবিধা চাই

0
214
Print Friendly, PDF & Email

দেশে গত এক দশকে সব ধরনের হৃদরোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার খবরটি নিঃসন্দেহেউদ্বেগজনকঅসংক্রামক এ ব্যাধির তালিকায় রয়েছে নারী, পুরুষ ও শিশুআগেধারণা করা হতো, শিশু-কিশোরদের হৃদরোগ হয় নাএ ধারণা ঠিক নয়দেশে বাতজনিতশিশু হৃদরোগীর সংখ্যা উদ্বেগজনক পর্যায়ে রয়েছে

 

সে তুলনায় চিকিসা ব্যবস্থাঅপ্রতুল ও অপর্যাপ্তসম্প্রতি প্রকাশিত স্বাস্থ্য বুলেটিন-২০১২ তেপ্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালে ২০০২ সালেযেখানে রোগীর সংখ্যা ছিল মাত্র ৮৬ হাজার ৯৪৪, সেখানে এক দশকের ব্যবধানে তাবেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৬৩ হাজার ৮১৩-তেএর বাইরেও রয়েছে অন্যান্য সরকারিহাসপাতাল ও হেলথ কমপে¬ক্সসহ কয়েকটি বিশেষায়িত বেসরকারি হাসপাতালসবাই যেহাসপাতালের তালিকাভুক্ত হতে পারেন তা নয়অজ্ঞানতা ও দরিদ্রতাবশত অনেকেহৃদরোগে আক্রান্তের খবর না জেনেই ঢোলে পড়েন মৃত্যুর কোলেআবার অনেকেইঅভাবের কারণে থেকে যান চিকিসার আওতার বাইরে

 

বিশেষজ্ঞ চিকিসক ও বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বর্তমানে হৃদরোগ বিশ্বের এক নম্বর হন্তারক ব্যাধিপ্রধানত খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন, ভেজাল খাদ্যদ্রব্য, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, কায়িক পরিশ্রম না করা, ধূমপান ও তামাক সেবন, পান-সুপারি খাওয়া, জাঙ্ক বাফাস্টফুড, কোমল পানীয় ও মাদকাসক্তি, পারিবারিক ও কর্মস্থলে অতিরিক্ত মানসিকচাপ বা স্ট্রেস, দ্রুত নগরায়ন সর্বোপরি পরিবেশ ও জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলেবাড়ছে হৃদরোগীর সংখ্যাএ অবস্থায় সাধারণ মানুষের একমাত্র ভরসার স্থল সরকারতথা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়জাতীয় বাজেটে পর্যায়ক্রমে বরাদ্দ বাড়িয়ে দেশেহৃদরোগের চিকিসা ব্যবস্থা সম্প্রসারণ করা উচিত বলে আমরা মনে করি

 

শেয়ার করুন