অবরোধ ভেঙ্গে গাজায় কাতারের আমির শেখ হামাদ

0
116
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
ফিলিস্তিনের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক পক্ষ ফাতাহ ও হামাসের মধ্যে ঐক্যের ডাক দিলেন গাজা সফররত কাতারের আমির শেখ হামাদ বিন খলিফা আল থানি।গাজার ওপর আরোপিত ইসরায়েলি অবরোধের নিন্দা জানানোর পাশাপাশি ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সাহসিকতার সঙ্গে লড়াই অব্যাহত রাখার জন্য গাজাবাসীর প্রশংসা করেন তিনি।
২০০৭ সালে হামাসের শাসন শুরুর পর ইসরায়েলি অবরোধ ভেঙ্গে এই প্রথম কোনো রাষ্ট্রপ্রধান গাজা সফরে গেলেন। মঙ্গলবার গাজার ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে স্থানীয় জনগণের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন তিনি। ফিলিস্তিন এবং আরবদের মধ্যে বিভক্তি ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধ আন্দোলনকে আরও দুর্বল করে দেবে বলে এ সময় সর্তক করে দেন তিনি।
কাতারি আমিরকে গাজায় ব্যাপক সংবর্ধনা দেয় হামাস। তার আগমনকে স্বাগত জানিয়ে হামাস মুখপাত্র তাহের আল নুনু বলেন, “তার সফর ব্যাপক রাজনৈতিক তাৎপর্য বহন করে। তিনিই প্রথম আরব নেতা যিনি গাজার ওপর আরোপিত রাজনৈতিক অবরোধ ভাঙ্গলেন।”কাতারি আমির এ সময় দরিদ্র গাজাবাসীদের জন্য দক্ষিণাঞ্চলীয় খান ইউনিস এলাকায় ১ হাজার নতুন বাড়ি নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করেন। ২০০৮ সালে গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় খান ইউনিস এলাকা।
হামাস প্রশাসনের প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া এ সময় গাজা সফরের সাহসী পদক্ষেপের জন্য কাতারি আমিরকে ধন্যবাদ জানান। গাজার কাতারি সাহায্য আগের ২৫ কোটি ডলার থেকে বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ৪০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
এদিকে গাজার জনগণকে সাহায্যের ব্যাপারে কাতারি আমিরের উদ্যোগের প্রশংসা করে তাকে ফিলিস্তিনি ভূখ-ন্ডে স্বাগত জানান পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রধানমন্ত্রী মাহমুদ আব্বাস। পাশাপাশি কাতারি আমিরের সফরের মাঝেই মঙ্গলবার রাতে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে মিশরের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি গাজায় কাতারের আমিরের সফরের প্রশংসা করেন। তার এই সফর গাজার ওপর ইসরায়েলি অবরোধ অবসানে মিশরীয় প্রচেষ্টাকে আরও জোরদার করবে বলে এ সময় উল্লেখ করেন তিনি।

নিউজরুম

শেয়ার করুন