রাজনৈতিক দলকে আলোচনার টেবিলে বসানোর দায় ইসি‘র নয়

0
146
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা, ঢাকা ২৩ অক্টোবর :
প্রধান দুই রাজনৈতিক দলকে আলোচনার টেবিলে বসানোর দায় নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নয় বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশন‍ার কাজী রকিব উদ্দিন আহমদ। মঙ্গলবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে টাঙ্গাইল-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান।
সিইসি বলেন, “আগামী জাতীয় নির্বাচন কোন সরকারের অধীনে হবে তা নিয়ে বাইরে অনেক আলোচনা হচ্ছে। অনেকে এ বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন। আশা করছি রাজনৈতিক দলগুলোই নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে এ বিষয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে।”
তিনি বলেন, “নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে ভাবা এবং রাজনৈতিক সমঝোতার কাজ ইসির নয়। যে সরকারই ক্ষমতায় থাকুক না কেন, ইসির দায় একটি সুষ্ঠু স্বচ্ছ শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠান করা।”কাপাসিয়া ও টাঙ্গাইল উপ-নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির অংশ না নেওয়া সম্পর্কে সিইসি বলেন, “পত্রপত্রিকায় পড়েছি, এটা বিএনপির পলিটক্যাল স্ট্যান্ট, বর্তমান কমিশনের প্রতি অনাস্থা নয়।”
সিইসি বলেন, “আজকের বৈঠকে টাঙ্গাইল-৩ উপ-নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ে বৈঠক হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সংস্থা ও বিভাগের কর্মকর্তারা এতে উপস্থিত ছিলেন। আমরা প্রাক নির্বাচনী প্রস্তুতি, নির্বাচনী কর্মপরিকল্পনা ও নির্বাচনকালীন সার্বিক বিষয়ে কথা বলেছি। স্বারাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পরবর্তী সময়ে তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে।” তিনি জানান, টাঙ্গাইল-৩ উপনির্বাচনেও স্ট্রাইকিং ফোর্স, মোবাইল কোর্ট, র‌্যাব পুলিশ, আসনার ভিডিপি মোতায়েন করা হবে। গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে ল্যাপটপ ও ক্যামেরার মাধ্যমে ঢাকা থেকে মনিটরিং করা হবে।
রকিব বলেন, “রাজনৈতিক দলগুলোর নিবন্ধন বিধিমালা তৈরি করে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হচ্ছে। এছাড়া আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক নতুন রাজনৈতিক দলগুলোর নিবন্ধনের জন্য আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত টাইম লাইন বেঁধে দেওয়া হচ্ছে।”

নিউজরুম

শেয়ার করুন