জামায়াতকে একঘরে করার আহবান হানিফের

0
179
Print Friendly, PDF & Email

রুপসীবাংলা, ঢাকা ২২ অওক্টাবর :
জামায়াতকে একঘরে করে দেওয়ার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। রোববার রাজধানীর কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে আয়োজিত এক স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহবান জানান। হানিফ বলেন, “জামায়াত দেশে বোমাবাজি, হত্যা ও জঙ্গিবাদের রাজনীতি শুরু করেছিল। তাদের সঙ্গে আল-কায়েদারও সম্পৃক্ততা ছিল।”জামায়াতকে একঘরে করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, “তাদের সঙ্গে কেউ কোনো সম্পর্ক রাখবেন না। একই সঙ্গে দেশের কোমলমতি সন্তানরা যাতে জামায়াতে অন্তর্ভুক্ত হতে না পারে সেদিকে সবার সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।”যুক্তরাষ্ট্রে আটক বাংলাদেশি তরুণ নাফিস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “নাফিস আল-কায়দার সঙ্গে জড়িত বলে যুক্তরাষ্ট্র দাবি করেছে। জানি না, এর পেছনে কি আছে? তবে সরকার নাফিসের জন্য আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছে। নাফিস নির্দোষ হলে তাকে যাতে সাজা ভোগ করতে না হয় সরকার সে চেষ্টাই করছে।” বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার চীন সফরের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘চীন এখন আমাদের অনেক বড় একটি উন্নয়ন সহযোগী দেশ। তাদের এ সহযোগিতা বন্ধ করতেই চীন গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। আর তার চীনে সফরের আগে পরিকল্পিতভাবেই রামুর ঘটনা ঘটানো হয়েছে।”
তিনি বলেন, “দেশের অভ্যন্তরীণ তথ্য বিদেশিদের হাতে তুলে দিয়ে খালেদা জিয়া আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন তিনি।”হানিফ বলেন, “ষড়যন্ত্র এখনো চলছে। পূজা উপলক্ষে রামুর মত ঘটনা ঘটানোর অপচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।” হলমার্কের ঘটনায় বিরোধী দলীয় নেতাদের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “আর্থিক দুর্নীতির ঘটনা পৃথিবীর সব দেশেই ঘটে। সরকার জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে, তাদের গ্রেফতার করেছে। কিন্তু বিরোধীদল এ বিষয়ে অপ-প্রচার চালিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে।”

নিউজরুম

শেয়ার করুন