নাটোরে পত্র দিয়ে হিন্দু ধর্মালম্বিদের হুমকি

0
76
Print Friendly, PDF & Email

নাটোর প্রতিবেদক
মুর্তি নিয়ে শহর বাজার রাস্তা কিংবা মসজিদের সামনে নৃত্য করা যাবেনা৷ বিদ্যালয় বা বিদ্যালয় মাঠে কোন পুজার আয়োজন করা যাবেনা৷ করলে নাটোর সহ সারা দেশে মন্দিরে মন্দিরে বাড়ীতে বাড়ীতে রামুর মত ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে এমন হুশিয়ারী দিয়ে হিন্দু ধর্মলম্বি বেশ কিছু লোক জন কে পত্র দেওয়া হয়েছে৷ এই পত্র পাওয়ার পর থেকেই আসন্ন দুর্গা পুজা নিয়ে আতংকের মধ্যে রয়েছেন হিন্দু সমপ্রদায়ের লোকেরা৷ তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন৷ গত সোমবার বাজ (ইঅঔঔ) নামে একটি সংগঠন ডাক যোগে এই পত্র প্রেরণ করেন৷
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, ডাক যোগে নাটোর সদর উপজেলার নলডাঙ্গা থানার চকপাড়া গ্রামের নিতাই চন্দ্র, বাসুদেবপুর বাজারের তপন কুমার, প্রশান্ত কুমার , কালাচানকে এমন পত্র দেওয়া হয়৷ পত্রে বলা হয়, হিন্দু সমপ্রদায়ের লোকেরা পুজার মাধ্যমে দেশের রাস্তাঘাট ,বাজার, বিদ্যালয় ইত্যাদি জায়গায় অশ্লীল পরিবেশ সৃষ্টি করছে৷ এসকল কারণে ইসরামী দেশ হিসাবে আমরা হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছি৷ পার্শবতর্ী দেশ ভারতে মুসলমানদের ওপরে হিন্দু সমপ্রদায়ের রোক সীমাহীন অত্যাচার করেই যাচ্ছে৷ অন্য দিকে ইহুদিরা হুজুরে পাক (সাঃ) কে কটাক্ষ করে ইসলামের ব্যাপক অবমাননা করেই যাচ্ছে৷ তাই আমরা ভালভাবে বলতে চাই মুর্তি বা প্রতিমা নিয়ে শহর, বাজার, বা রাস্তা ,বিদ্যালয় ও মসজিদের সামনে নৃত্য প্রদর্শন করা বন্ধ করতে হবে৷ পুজা করবেন মন্দিরে ,বিদ্যালয় বা রাস্তায় নয়৷ পত্রে বলা হয়, আপনারা বাংলাদেশের পুরো হিন্দু ধর্মের লোকদের জানান, এসকল নির্ধেশ না মানলে রামুর ঘটনা পুরো বাংলার মন্দিরে মন্দিরে বাড়ীতে বাড়ীতে ঘটবে৷ ভাইয়ের রক্তের বদলে আপনাদের রক্ত নিতে দ্বিধা বোধ করবনা৷ সচেতন হন৷ ইতি বাজনিতাই চন্দ্র জানান, এই পত্র প্রাপ্তির পর থেকেই তারা নিরাপত্তা হীনতায় রয়েছেন৷ অনুরম্নপ চিঠি আরো কয়েকটি পুজা মন্ডপে পাঠানো হয়েছে৷
এ বিষয়ে নাটোর জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নগেন্দ্র চন্দ্র রায় জানান, বিষয়টি সম্পর্কে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নানকে জানানো হয়েছে৷ নাটোরের পুলিশ সুপারকে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য হুমকি দিয়ে প্রেরিত পত্র হস্তান্তর করা হয়েছে৷
আশা করছি সংশ্লিষ্ট প্রশাসন শনত্মি পূূর্ণ ভাবে আমাদের শারদীয় দুর্গেত্‍িসব উদযাপানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন৷ নাটোরের পুলিশ সুপার কাইয়ুমুজ্জামান খান জানান, আপাত দৃষ্টিতে এটি একটি উড়ো চিঠি মনে হলেও আমরা বিষয়টিকে হালকা ভাবে দেখছিনা৷ স সংশ্লিষ্ট পুজা মন্ডপ গুলোতে নিরাপত্তা বৃদ্ধির পাশাপাশি দায়ী ব্যক্তিকে খুঁজে বের করার জন্য তদনত্ম চলছে৷

প্রতিবেদন সূফি সান্টু, আপলোড ১৮ অক্টোবর : সম্পাদনা আলীরাজ/ আরিফ,নিউজরুম

শেয়ার করুন