ব্যাংক জালিয়াতির ২ হাজার ৬ শ’ কোটি টাকার মধ্যে ২৩২কোটি টাকা ফেরত দিয়েছে হলমার্ক

0
71
Print Friendly, PDF & Email

/>রূপসীবাংলা, ঢাকা ১৭ অক্টোবর :
জালিয়াতির মাধ্যমে সোনালী ব্যাংক থেকে তুলে নেয়া ২ হাজার ৬ শ’ কোটি টাকার মধ্যে ২৩২ কোটি টাকা ফেরত দিয়েছে হলমার্ক গ্রুপ। বুধবার দুপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান সোনালী ব্যাংকের বর্তমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রদীপ কুমার দত্ত।
তিনি বলেন, “হলমার্ক ২৩২ কোটি টাকা ফেরত দিয়েছে এবং ৪৮ কোটি টাকা ফেরত দেয়ার প্রক্রিয়ায় আছে।`
` প্রদীপ কুমার দত্ত বলেন, “হলমার্কের বিরুদ্ধে মামলার ব্যাপারটি সোনালী ব্যাংক দেখছে। আর মামলার ব্যাপারে কিছু জটিলতা রয়েছে। ঋণ জালিয়াতির এ ঘটনা খতিয়ে দেখতে দুই জন আইনজীবী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কাগজপত্র ঠিক-ঠাক করে তারা মামলার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।”
মামলা করার ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা আছে জানিয়ে তিনি বলেন, “মামলার জটিলতা হলো- এখানে কিছু লোন আছে আর কিছু জালিয়াতি। সেইগুলো তারা বিবেচনা করবে। কোনটা কোন কেস তা তারা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া আইনের আশ্রয় নিলে ব্যাংকের হেরে যাওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। এটা ব্যাংকের জন্য ক্ষতিকর।”
নিজেকে নির্দোষ দাবি করে তিনি বলেন, “আমি আসার আগে এই ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনার সাথে আমি জড়িত ছিলাম না। আমার নিয়োগের পর কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি তা দুদকে জানিয়েছি।”
সকাল দশটায় তিনি দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আসেন। সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন তিনি জিজ্ঞাসাবাদে আসেননি। কিছু তথ্য দিতে এসেছেন।
এদিকে দুদক সূত্র জানায়, সকাল সাড়ে দশটা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দুদকের অনুসন্ধান টিম তাকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। প্রসঙ্গত, হলমার্কসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ঋণের নামে সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা (হোটেল শেরাটন) শাখা থেকে ৩ হাজার ৬শ’ ৬ কোটি ৪৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এর মধ্যে হলমার্ক একাই দুই হাজার ৬ শ’ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে এ ব্যাপারে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। দুদক ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাজধানীর রমনা থানায় সোনালী ব্যাংক ও হলমার্কের কর্মকর্তাসহ মোট ২৭ জনের বিরুদ্ধে ১১টি মামলা করে।

নিউজরুম

শেয়ার করুন