সিংড়ায় গাছ কাটায় প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ

0
125
Print Friendly, PDF & Email

রূপসীবাংলা,সিংড়া, ১৬ অক্টোবর :
নাটোরের সিংড়া উপজেলার বেলোয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০হাজার টাকা মূল্যের একটি ইউক্যালিপটাস গাছ গোপনে কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, শনিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেনের নির্দেশে আলম নামের এক কাঠ ব্যবসায়ী গাছটি সকলের অগোচরে কেটে নিয়ে যায়।
বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর স্থানীয়রা শনিবার বিকেলে পাশ্ববর্তী রনবাঘা বাজার হতে গাছটি উদ্ধার করে আনে। এঘটনায় বিক্ষুুব্ধ এলাকাবাসী রোববার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরম্নদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন সহ তার কক্ষ তাকে অবরম্নদ্ধ করে রাখে।
পরে স্থানীয় বিশিষ্টজনদের হসত্মক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য এনায়েত কবীর বাবলু জানান, প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিকে না জানিয়ে গোপনে ৩ হাজার টাকায় কাঠ ব্যবসায়ী আলমের কাছে ওই গাছ বিক্রয় করে। পরে দুপুরে গাছ কেটে রনবাঘা বাজারে ট্রাকে তোলার সময় এলাকার জনগণ গাছটি জব্দ করে স্কুলে নিয়ে যায় এবং রোববার প্রধান শিক্ষক স্কুলের গেলে শত শত জনগণের তপের মুখে কিছুক্ষণের জন্য অবরম্নদ্ধ হয়ে পড়ে। এসময় ÿুব্দ জনগণ প্রধান শিক্ষকের বিরম্নদ্ধে সম্প্রতি অত্র প্রতিষ্ঠানে ৭টি শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যের প্রায় ২০লক্ষাধিক টাকার অভিযোগ এনে বিচার দাবি করে।
কাঠ ব্যবসায়ী আলম জানায়, এলাকার মাতববর সিদ্দিক, প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেনের সাথে মোবাইলে কথা বলে গাছটি তার কাছে বিক্রয় করায় সে কেটেছে।
ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি আহাদ আলী ও বিদ্যুৎসাহী সদস্য শ্রী বানারাম জানান, গাছ কাটার বিষয়ে তাদের কোন মিটিং হয়নি। প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেন জানান, তার বিরম্নদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা। আর গাছ কাটার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান খান জানান, গাছ কাটার বিষয়ে তিনি অবগত নন।
প্রতিবেদক, সাইফুল ইসলাম সম্পাদনা: আলীরাজ/ আরিফ/ সালমা, নিউজরুম

শেয়ার করুন