জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর নাটোর থানায় জিডি

0
117
Print Friendly, PDF & Email

রূপসীবাংলা, নাটোর ১৩ অক্টোবর :
নাটোর জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও বর্তমান কমিটির সহ সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাচ্চু তার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে শনিবার থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন। তাকে মোবাইল ফোনে প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের জন্য স্থানীয় এক সাংবাদিক সহ বিএনপির ৩ কর্মীর নাম উলস্নখ করা হয়েছে ওই জিডিতে।
জিডিতে বলা হয়েছে, জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপমন্ত্রী রম্নহুল কুদ্দুস তালুকদারের বিরম্নদ্ধে শহরে কে বা কারা লিফলেট বিতরন করে। এজন্য দোষারোপ করে শুক্রবার রাতের বিভিন সময়ে সাংবাদিক ও বিএনপি কর্মী নাসিম উদ্দিন ,এনএস সরকারী কলেজের সাবেক জিএস মনোয়ার হোসেন তুষার ও একই দলের কর্মী রনি মোবাইল ফোনে তাকে গালাগালাজ করা সহ প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এছাড়া শুক্রবার গভীর রাতে তার বাসভবনের ভিতরে পলিব্যাগে করে মানব বিষ্টা ফেলা হয়। একারনে তিনি তার নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করেন। সাংবাদিক নাসিম উদ্দিন এই অভিযোগকে প্রতিহিংসা বশত: উলেস্নখ করেন জানান,স্থানীয় একটি দৈনিকে সম্প্রতি শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর চাঁদাবাজি সহ অতীত অপকর্মের বিরম্নদ্ধে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এজন্য তিনি আমাকে সন্দেহ করে এই মিথ্যা অভিযোগ এনে জিডি করেছেন তিনি। উলেস্নখ্য,রম্নহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর সম্পাদনায় নাটোর থেকে প্রকাশিত দৈনিকে (জনদেশ) শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর অতীত কর্মকান্ড নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে বিএনপির অভ্যমত্মরিন বিরোধ প্রকাশ্যে চলে আসে। এসব নিয়ে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন সহ বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।
সম্প্রতি দুলুর বিরম্নদ্ধে শহর এলাকায় একটি লিফলেট বিতরন করা হয়। জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আমিনুল হক জানান, তিনি নাটোরের বাহিরে থাকায় বিষয়গুলি তিনি অবগত নন। তবে শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর আনা এধরনের অভিযোগ সত্য নয়। মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। বিএনপির ভাবমুর্তি নষ্ট করতে তিনি এখন সরকারী দলের হয়ে কাজ করছেন।
নাটোর বিএনপির মধ্যে কোন বিরোধ নেই। দুলুর দক্ষ নেতৃত্বে নাটোর বিএনপি এখন অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় বেশী সংগঠিত ও শক্তিশালী।
নিউজ প্রতিবেদক, সম্পাদনা আলীরাজ/ আরিফ

শেয়ার করুন