পুলিশ ও ইসলামী ১২দলের কর্মীদের মধ্যকার সংঘর্ষে আহত ২৫, আটক শতাধিক

0
200
Print Friendly, PDF & Email

রূপসীবাংলা ঢাকা :
পুলিশের সঙ্গে খেলাফত আন্দোলন ও ইসলামী সমমনা ১২দলের কর্মীদের মধ্যকার সংঘর্ষে রাজধানীর পল্টন, বায়তুল মোকাররম মোড়, দৈনিক বাংলা এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে টিয়ারশেল ও গুলি করে পুলিশ। শুক্রবার দুপুড় দেড়টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত দফায় দফায় চলে এই সংঘর্ষ। এতে প্রায় ২৫জন আহত হয়েছে।
শুক্রবার বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে থেকে মহানবী (সা:) এর অবমাননা করে চলচিত্র নির্মাণের প্রতিবাদে ও খেলাফত আন্দোলনের নেতা মুফতি ফজলুল হক আমিনীর গৃহবন্দি থেকে মুক্তির দাবিতে কর্মীরা বিক্ষোভ করার চেষ্টাকালে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।এই ঘটনায় রাজধানীর পল্টন, রমনা, মতিঝিল ও শাহবাগ থানা মিলে প্রায় শতাধিক কর্মীকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, বিক্ষোভকারীরা সঙ্গে জামায়াত শিবিরের কর্মীরাও যোগ দিয়েছিল।
বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে জুময়ার নামাজ শেষ হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে খেলাফত আন্দোলনের সহকারী সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুব আন্দোলনের সভাপতি মুফতি ফকরুল ইসলাম নেতাকর্মীদের মিছিল করার নির্দেশ দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার মুহুর্তে পুলিশ তাকে আটক করে। এর কয়েক মিনিটের মধ্যে কর্মীরা মসজিদের উত্তর গেটে সংগঠিত হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ডটিয়ার শেল নিক্ষেপ করে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে। খেলাফতের কর্মীরা এ সময় কিছুটা পিছু হটে পুলিশের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে বেঁধে যায় সংঘর্ষ। দেড়টার দিকে খেলাফত আন্দোলনের কর্মীদের মিছিলে বাধা ও টিয়ারশেল নিক্ষেপের পরপরই খেলাফত আন্দোলনের কর্মীরা কয়েকভাবে ভাগ হয়ে যায়। তারা দৈনিক বাংলা মোড়, গুলিস্থান মোড়, প্রেসক্লাব মোড়, বিজয় নগর, কাকরাইল মোড়সহ পুরো এলাকায় ছড়িয়ে গিয়ে পুলিশের উপর ইটপাকল নিক্ষেপ করতে থাকে। জবাবে পুলিশ টিয়ার শেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এক পর্যায়ে শট গানের গুলিও করা হয়। খেলাফত আন্দোলনের কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিনত হয়। পুলিশের সাঁজোয়া যান এপিসি থেকেও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়। সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশসহ অমত্মত ২৫ জন আহত হয়েছে। তবে এদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শতাধিক কর্মীকে আটক করে পুলিশ।
নিউজরুম, ১২অক্টোবর।

শেয়ার করুন