নাটোরে ৮বছরের এক শিশু ধর্ষনের শিকার

0
135
Print Friendly, PDF & Email

রূপসীবাংলা, নাটোর, ১১ অক্টোবর :
নাটোরে নিলা নামে ৮ বছরের এক শিশু কন্যা ধর্ষিত হয়ে ৫দিন ধরে সদর হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। গত শুক্রবার প্রতিবেশী নরপশু শিহাব অর্থের লোভ দেখিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে তাকে ধর্ষন করে।
র্ববরোচিত আচরনে ধর্ষিত ওই শিশুর যৌনাঙ্গ ছিঁড়ে গেছে। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই শিশুকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত পাঁচদিন ধরে নাটোর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। স্থানীয় মানবাধিকার বাসত্মবায়ন সংস্থা দরিদ্র এই পরিবারকে চিকিৎসা ও আইনি সহায়তা দিলেও পুলিশ ধর্ষক শিহাবকে আটক করতে পারে নি। তবে পুলিশ বলছে ঘটনার রাত থেকেই শিহাবকে ধরতে অভিযান চালারনা হচ্ছে। কিন্তুু গা ঢাকা দেওয়ায় তাকে পাওয়া যাচ্ছে না।
পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানান, নাুটার সদর উপজেলার রামনগর নোখালীপাড়া গ্রামের আবুল কালামের ৮ বছরের মেয়ে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী নিলাকে গত শুক্রবার দুপুরে প্রতিবেশী আইয়ুব আলীর বখাটে ছেলে সিটি কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র শিহাব ১০ টাকা হাতে দিয়ে তার বাড়িতে ডেকে নেয়। পরে তার ঘরে ভয় দেখিয়ে নিলাকে জোর পুর্বক ধর্ষন করে। ধর্ষিত নিলার মা নাজমা বেগম জানান, শিহাব তার মেয়েকে টাকার লোভ দেখিয়ে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। নিলাকে ঘরে ঢুকিয়ে চাকু ধরে ভয় দেখিয়ে কয়েকবার ধর্ষন করে। এসময় শিহাবের বাবা-মা পাশের ঘরেই ছিল। ধর্ষনের পর নিলাকে চাকুর ভয় দেখি বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। বার বার ধর্ষনের কারণে তার গোপনাঙ্গ ছিঁড়ে গেছে কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। তার মেয়ে এখন নাটোর সদর হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। নাজমা তার মেয়েকে ধর্ষনকারী শিহাবের বিচার চেয়েছেন। নাটোর মানবাধিকার বাসত্মবায়ন সংস্থার কর্মী আসাদুজ্জামান শামীম জানান, এই ধর্ষনের খবর পেয়ে শিশুটির চিকিৎসা সহ আইনী সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। শিশুটির মা নাজমা বেগম বাদী হয়ে নাটোর থানায় একটি মামলা করেছেন। তারা ধষর্ঞ্চক শিহাবকে গ্রেফতার সহ দাবী জানিয়েছেন।
নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, জোর করে ধষর্ণের কারনে শিশুটির যৌনাঙ্গ ছিঁড়ে যাওয়ায় কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি সুস্থ রয়েছে। ঘটনাটি বর্বর ও অমানবিক। এর সাথে জড়িত ব্যাক্তির বিচার দাবী করেন তিনি। নাটোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুলস্নাহ আল মামুন জানান,এঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। ধর্ষককে ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে। কিন্তু ঘটনার পর থেকে গা ঢাকা দেওয়ায় তাকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।
নিউজরুম

শেয়ার করুন