নওগাঁর পোরশা হাই মাদ্রাসা কাম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

0
120
Print Friendly, PDF & Email

মোফাজ্জল হোসেন, নওগাঁ, প্রতিবেদক :
নওগাঁর পোরশায় ভূয়া সার্টিফিকেট দেখিয়ে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন এবং নানান দুর্নীতির অভিযোগে এক শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে।
সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার আদমদিঘি উপজেলার কুসুমবি গ্রামের মৃত দারাজ উদ্দিন মন্ডলের পুত্র শফিউল আলম পোরশা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পোরশা হাই মাদ্রাসা কাম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক পদে গত ২০০৮ সালের ১৯শে ফেব্রম্নয়ারী যোগদান করেন। তিনি যোগদান করার পর থেকে এ প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়ার মান অনেকাংশে কমে যাওয়া, আর্থিক অনিয়ম দূর্নীতি, কর্তৃপক্ষের আদেশ নির্দেশ পালনে অবজ্ঞা, কর্তব্যে অবহেলা, ভূয়া শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদপত্র এবং জাল ইনডেক্স নম্বর ব্যবহার করে এমপিও ভুক্তি করার কারনে উক্ত স্কুল ম্যানেজিং কমিটির এক মিটিংয়ে সর্বসম্মতিক্রমে তাকে উক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মন্জুর মোর্শেদ জানান, এ শিক্ষক আমাদের প্রতিষ্ঠানে যোগদান করার পর বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি শুরম্ন করে, পরে আমরা জানতে পারি ঐ শিক্ষক ভৃয়া কাগজ পত্র দিয়ে শিক্ষকতা করছেন।
এসব কারনে প্রথমে আমরা তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। পরে এক মিটিংয়ে তাকে সাময়িকক্রমে বরখাস্ত করা হয়। প্রধান শিক্ষক শফিউল আলম সাময়িক বরখাস্তে একটি কাগজ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমাকে অন্যায় ভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। আমার সকল কাগজ পত্র বৈধ, তাছাড়া আমি কোন দুর্নীতি করিনি।
.নিউজ প্রতিবেদক, সম্পাদনা আলীরাজ/ আরিফ

শেয়ার করুন