নওগাঁর আত্রাইয়ে ৪টি প্রকল্পের অর্থ হরিলুট

0
181
Print Friendly, PDF & Email

মোফাজ্জল হোসেন, নওগাঁ প্রতিবেদক:
নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় হাটকালুপাড়া ইউনিয়নে ৪টি প্রকল্পের কোন কাজ না করেই পুরো টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, গত ২৭মে তারিখে অনুষ্ঠিত আত্রাই উপজেলার মে মাসের মাসিক সমন্বয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের বান্দাইখাড়া হাটের মসজিদ মার্কেট হতে পুরাতন ইউপি অফিস পর্যন্ত পাকা ড্রেন নির্মান ও ড্রেনের উপর আরসিসি স¬াব নির্মান প্রকল্প-২ বাস্তবায়নের জন্য ১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।
অপরদিকে ২৮জুন তারিখে অনুষ্ঠিত জুন মাসের মাসিক সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের বান্দাইখাড়া জিসি হাটের রাস্তায় কমুনিটি সেন্টার হতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তায় ইট সোলিং প্রকল্প অংশ-১ বাস্তবায়নে ১ লাখ টাকা, হাটকালুপাড়া ওয়াবদা বাঁধ হতে আনছারের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তার মাঝখানে গর্তভরাট ও ইট সোলিং প্রকল্প বাস্তবায়নে ১ লাখ টাকা এবং হাটকালুপাড়া-বড়শিমলা রাস্তার মাঝখানে ব্রীজের দুই পার্শ্বে এপ্রোচ ফিলিং কাজে ১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বান্দাইখাড়া হাটের মসজিদ মার্কেট হতে পুরাতন ইউপি অফিস পর্যন্ত পাকা ড্রেন নির্মান ও ড্রেনের উপর আরসিসি স¬াব নির্মান এবং বান্দাইখাড়া জিসি হাটের রাস্তায় কমিউনিটি সেন্টার হতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তায় ইট সোলিং প্রকল্প অংশ-১ এ দুটি প্রকল্পের প্রকল্প চেয়ারম্যান হিসাবে ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক দুলু নিজেই আছেন। অন্যদিকে হাটকালুপাড়া ওয়াবদা বাঁধ হতে আনছেরের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তার মাঝখানে গর্তভরাট ও ইট সোলিং প্রকল্প এবং হাটকালুপাড়া- বড়শিমলা রাস্তার মাঝখানে ব্রীজের দুইপার্শ্বে এপ্রোচ ফিলিং প্রকল্পের প্রকল্প চেয়ারম্যান হিসাবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে সংশি¬ষ্ট ওয়ার্ড সমূহের মহিলা মেম্বর আকলিমা বেগমকে। এই ৪টি প্রকল্পের কোথাও কোন মাটি কাটা, ইটসোলিং বা গর্তভরাট কিছুই করা হয়নি। সংশি¬ষ্ট সড়কের যে ব্রীজের এপ্রোচ ফিলিং করার কথা তাও করা হয়নি। কারন এ ব্রীজ নির্মানের সাথেই এপ্রোচ ফিলিং করা হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে মহিলা মেম্বার আকলিমা বেগমের সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান, ব্রীজের উভয় পার্শ্বে পানি থাকার কারনে এপ্রোচ ফিলিং এর কাজ করা সম্ভব হয়নি। তবে অন্য প্রকল্পে কেবল বালু ভরাট করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম দুলুর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ড্রেন নির্মান ও ড্রেনের উপর আরসিসি স¬াব নির্মান করেছি কিন্তু ইট সোলিং প্রকল্প ১নং ইট না পাওয়ার জন্য করা হয়নি। ১নং ইট পাওয়া মাত্রই কাজ শুরু করবো। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সোবহানের সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই। তবে অবিলম্বে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।
প্রতিবেদক মোফাজ্জল হোসেন সম্পাদনা আলীরাজ/ আরিফ

শেয়ার করুন