৪৮ ঘন্টার আলিমেটাম শেষ হলো ২৩৯ দিনে

0
124
Print Friendly, PDF & Email

রূপসীবাংলা ঢাকা, ১০ অক্টোবর :
সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের ৪৮ ঘন্টার আলিমেটাম শেষ হলো ২৩৯ দিনে। বহুল আলোচিত সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরোয়ার ও মেহেরুন রুনির সনেদহভাজন আট খুনির নাম প্রকাশ করেছেন নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর।
ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্ত করে এরই মধ্যে ৭জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় সংবাদ সম্মেলনে ‘খুনিদের’ নাম প্রকাশ করেন মন্ত্রী। এ সময় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, সানজিদা খানম এমপি, স্বরাষ্ট্র সচিব সি কিউ কে মুসতাক র্যাবের মহাপরিচালক মোখলেছুর রহমান, আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার এম সোহায়েল, গোয়েনদা বিভাগের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিয়াউল আহসান উপস্থিত ছিলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে রফিক, বকুল, পিন্টু, সাঈদ ও গাড়িচালক কামরুল হাসান অরুণ বক্ষব্যাধি হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নারায়ণ চন্দ্র দত্ত নিতাই হত্যায়ও জড়িত। বাকিরা হলেন সাংবাদিক দম্পতির বাড়ির নিরাপত্তাপ্রহরী হুমায়ুন কবীর ওরফে এনামুল, রুদ্র পলাশ ও রুনির পারিবারিক বন্ধু তানভীর। এর মধ্যে সাতজনকে গ্রেফতার করা হলেও দারোয়ান এনামুল পলাতক। তাকে ধরার জন্য ১০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুরু থেকেই এ হত্যাকান্ডে তদমত্ম তদারকি করে আসছে। সর্বোচ আদালতের নির্দেশে র্যাবকে তদমেত্মর দায়িত্ব দেওয়া হয়। র্যাব বিদ্যমান প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। তারা খুনিদের শনাক্ত করতে যুক্তরাষ্ট্রে ল্যাবের সাহায্য নিয়েছে।
এই আটজনের বাইরে যদি কেউ জড়িত থাকেন, ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে তাদেরও শনাক্ত করা হবে।’ মহীউদ্দীন খান আলমগীর বলেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়ে বলেছিলাম প্রকৃত অপরাধীদের শনাক্ত করে বিচারের আওতায় আনা হবে। একই সঙ্গে বলেছিলাম ১০ অক্টোবরের মধ্যে জড়িত অপরাধীদের বিষয়ে একটা সুনির্দিষ্ট তথ্য দেব।’ হত্যার মোটিভ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তদমত্ম চলছে।’ সাংবাদিক দম্পতিকে খুনের পর এত দিন খুনিরা কীভাবে বাইরে ছিল, আর পরে আরেকটি খুন করল এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীর সব দেশে অপরাধী থাকে। সিরিয়াল কিলার থাকে। তাদের শেষ পর্যমত্ম চিহিণত এবং গ্রেফতার করা হয়।’ এটি আরেকটি জজ মিয়া নাটক হচ্ছে কি না, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনিই বলুন এটি নাটক কি না? নাটক সাজিয়ে তদমত্ম ভিন্ন খাতে নিতে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসেনি।’ এদিকে তদমত্ম সংশিস্নষ্টরা জানান, সাগর-রুনির ওই ফ্ল্যাট বাড়িতে হুমায়ুন যেদিন নিরাপত্তাপ্রহরী হিসেবে যোগ দেন, সেই রাতেই খুন হন তারা। বাড়িতে চাকরির জন্য জীবনবৃত্তামত্ম এবং এনামুলের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের সিমকার্ড রেজিস্ট্রেশনের ঠিকানাও মিথ্যা ছিল। হুমায়ুন কারও হয়ে পরিকল্পিতভাবে ওই বাড়িতে চাকরি নিয়েছিলেন কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
র্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার এম সোহায়েল বলেন, ‘হুমায়ুনের গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজারে। এর বেশি কিছু বলা যাচ্ছে না।’ তিনি আরও জানান, যুক্তরাষ্ট্রের একটি রাসায়নিক পরীক্ষাগারে পাঠানো ডিএনএ’র পূর্ণাঙ্গ বিবরণ পেতে আরও দুই সপ্তাহের মতো লাগবে। তবে বেশ কিছু বিষয় নিশ্চিত হওয়ার পরই হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাদের আদালতে পাঠানো হবে। রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসায় গত ১০ ফেব্রুয়ারি রাতে মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সরোয়ার এবং তার স্ত্রী এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি নির্মমভাবে খুন হন। পর দিন ভোরে তাদের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই দিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন ৪৮ ঘণার মধ্যে খুনিদের গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আলটিমেটাম দিয়েছিলেন।
নিউজরুম

শেয়ার করুন